Ultimate magazine theme for WordPress.

বাঁচবো কি না জানি না তবে এই চরম মুহূর্তে কিছু সত্য কথা বলে যেতে চাই

অনলাইন ডেস্ক

ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রবাসী সিদ্দিকী নাজমুল আলম হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে লন্ডনের বার্থ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক আইডিতে হাসপাতালের গাউন পরা অবস্থায় দুটি ছবি সংযুক্ত করে একটি দীর্ঘ স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি।

সবাই আমাকে আল্লাহর ওয়াস্তে ক্ষমা করে দিয়েন। বাঁচবো কি না জানি না তবে এই চরম মুহূর্তে কিছু সত্য কথা বলে যাই।

আমি রাজনীতিটা একমাত্র দেশরত্ন শেখ হাসিনারে মেনেই করতাম এবং করি। কোনদিন তার বাইরে যাইনি।

সাবেক অনেক বড় ভাইদের কথায় আমি কখনও চলি নাই।

বরং পেছনের সারির অনেককে নেতা বানাইছি নিজের ইচ্ছায়।
আর প্রেম করেছিলাম কিন্তু মানিয়ে নিতে পারিনি তাই বিয়ে হয়নি।

আর শেষ কথা হলো বাংলাদেশে কোনো ব্যাংকে আমার নামে এক পয়সাও লোন নাই এবং লোনের কোনো টাকা বিদেশেও নিয়ে আসিনি। তদবির, ঠিকাদারি, দালালি, পদবাণিজ্য কখনও করিনি।

লন্ডনে গায়ে খাটি। জীবনে যে কাজ করিনি তা করে জীবনযুদ্ধে লিপ্ত ছিলাম। কিন্তু আমার কপাল ভালো না। কিছুক্ষণ আগেই আমার এনজিওগ্রাম সম্পন্ন হয়েছে, অনেকগুলো ব্লক ধরা পড়েছে। ওপেন হার্ট সার্জারি করতে হবে। হয়তো বা আজকালের মধ্যেই করবে।

সরকারি হাসপাতালেই করবে। কারণ এইদেশে চিকিৎসা ফ্রি তাই আর কেউ কষ্ট কইরা ভুল তথ্য দিয়েন না যে কোটি টাকার অপারেশন। যদি মরে যাই, একটাই কষ্ট থাকবে। নিজের দলের মানুষের প্রতিহিংসার স্বীকার হয়ে মিডিয়া ট্রায়াল হয়েছে বারবার আমার নামে। আর আফসোস হয়তো বা বড় কোনো ভাই আমার নামে অনেক মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে আমার নেত্রীর কান ভারি করে রেখেছে। সেই ভুলগুলো হয়তো ভাঙিয়ে যেতে পারলাম না।

আপা আপনিই আমার মমতাময়ী জননী, স্নেহময়ী ভগিনী।

আপনাকে অনেক ভালোবাসি। ক্ষমা করে দিয়েন আমাকে।

সবাই ভালো থাকবেন। আপনাদের আর যন্ত্রণা দিবো না।

Leave A Reply

Your email address will not be published.