Ultimate magazine theme for WordPress.

দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়কের ভাতগাঁও ব্রীজে ফাটল, সর্তক স্বরুপ লাল ঝানটা

দিনাজপুর প্রতিনিধি

দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়কের কাহারোল উপজেলার ঢেপা নদীর ভাতগাঁও ব্রীজে মেয়াদ উত্তীন হওয়ায় ব্রীজের মাঝখানে ফাটল দেখা দিয়েছে। ব্রীজের পশ্চিম পাড়ে উত্তর অংশে এই ফাটল দেখা দিয়েছে।

দিনাজপুর সড়ক ও জনপদ বিভাগ খবর পেয়ে ফাটল স্থানে একটি বালির বস্তা দিয়ে লাল কাপড় বেধে সর্তকস্বরুপ লাল পতাকা উড়িয়ে দিয়েছে।

আজ শুক্রবার বিকেলে সরে জমিনে গিয়ে দেখা যায় ব্রীজের ঢালাই খসে গিয়ে রোর্ড বেরিয়ে গেছে। যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরণের দূর্ঘটনা।

দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়কের কাহারোল উপজেলার ৩ নং মুকুন্দপুর ইউনিয়নের উপর দিয়ে প্রবাহিত ঢেপা নদীর উপরে ১৯৬০ সালের দিকে ভাতগাঁও নির্মান করা হয়। মহাসড়কের এই ব্রীজের উপর দিয়ে দিনাজপুর-ঠাকুরগাও ও পঞ্চগড় জেলার সকল প্রকার যানবাহন চলাচল করে। পঞ্চগড় থেকে পাথর বোঝাই ১০ চাকার ট্রাক দেশের বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করে থাকে। গত কয়েকদিন ধরে ব্রীজের ঐ স্থানে ঢালাই খসে পড়ে যায়। গত বৃহস্পতিবার রাত ও শুক্রবার সারা দিনের বৃর্ষ্টিতে ফাটলটি আরো বড় হয়ে যায়। বেরিয়ে রোর্ড। প্রতিদিন কয়েক হাজার বাস ট্রাক, ট্রাক্টর , অটো রিকশা , মোটর সাইকেল , পিক আপ ভ্যানসহ এই ভাতগাঁও ব্রীজের উপর দিয়ে পারাপর হয়ে থাকে । এই ভাতগাঁও ব্রীজ ক্ষতিগ্রস্থ হলে ঠাকুরগাও ও পঞ্চগড় জেলার সাথে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যাবে ।

শুক্রবার দুপুরে দিনাজপুর সড়ক ও জনপদ বিভাগ খবর পেয়ে ব্রীজের ফাটল স্থানে লাল ঝান্ডা উড়িয়ে দিয়েছে। ব্রীজের উপর দিয়ে ঝুকি নিয়ে যানবাহন চলাচল করছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে দিনাজপুর সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সুনীতি চাকমা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, শনিবার সকাল থেকে ব্রীজটির উপর বেলী ব্রীজ সেট করে ফাটল স্থন মেরামত করা হবে। তিনি বলেন ব্রীজটি ১৯৬০ সালে তৈরি হয়েছে। পুরাতন ব্রীজ হওয়ায় এই অবস্থা হয়েছে। ব্রীজ দিয়ে যানবাহন চলাচল অব্যাহত রয়েছে। ব্রীজটি ক্ষতিগ্রস্থ হলেও ঝুঁকিপুর্ণ নয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.