Ultimate magazine theme for WordPress.

দিনাজপুরে সবাত্মক লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অস্থানে প্রশাসন

দিনাজপুর প্রতিনিধি


দিনাজপুরে সরকার ঘোষিত সবাত্মক লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন । জেলা প্রশাসনের নির্দেশে আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মাঠে রয়েছে । জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট , সেনাবাহিনী , বিজিবি , পুলিশ , র‌্যাব, আনসার সমন্বিত আইন শৃঙ্খলা বাহিনী জেলা সদরের প্রবেশদ্বরে চেক পোষ্ট বসিয়েছে । সেনাবাহিনী , বিজিবি , র‌্যাব , পুলিশের টহল অব্যাহত থাকায় তেমন বেশি জনসাধান বাড়ীর বাহিরে বের হয়নি ।

দিনাজপুর শহরের প্রবেশদ্বারে পুলিশ ও আনসারের সম্বনিত বাহিনী তৎপরতা বেশি থাকায় ছোট ছোট যানবাহন শহরে প্রবেশ করতে পারেনি । হালকা ছোট যান চলাচলের পাশাপাশি লকডাউনের আওতামুক্ত ট্রাক , কৃষি পন্য সরবরাহ যানবাহন , ঔষুধ সরবরাহকারী যানবাহন চলাচল করতে দেখা গেছে ।

জরুরী প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাহিরে বের হলেই আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে । সর্বাত্মক লকডাউনের প্রথম দিনে তেমন যানবাহন , দোকানপাট শহরে বন্ধ ছিল । এছাড়াও প্রশাসনের তৎপরতা ছিল চোখে পড়ার মত । সেনাবাহিনী মাঠে থাকায় জনসাধারন একটু আতংকেই ছিল ।

দিনাজপুরে দায়িত্ব প্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মেজর ইমরান হোসেন বলেন , সেনাবাহিনীকে নিয়ে আতংকিত হওয়ার কিছু নেই । সেনাবাহিনী দেশের জরুরী অবস্থায় সব সময় পাশে ছিল পাশে থাকবে । দেশের এটা দূর্যোগ চলছে । জেলা প্রশাসনের নির্দেশ মোতাবেক সেনাবাহিনী কাজ করে যাবে ।

দিনাজপুর পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন বলেন , রাষ্ট্র কর্তৃক লকডাউন কার্যকর করার জন্য পুলিশ শেষ দিন পর্যন্ত মাঠে থাকবে । লকডাউনে জনসাধারনকে ঘরে থাকার আহবায়ন জানিয়ে তিনি বলেন এই করোনা পরিস্থিতিতে নিজে সুস্থ্য থাকেন , নিজের আত্মীয় স্বজনকে ভাল রাখেন এবং অপরজনকে সুস্থ্য রাখার জন্য বাড়ীতে অবস্থান করুন ।

জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকী বলেন , লকডাউন কার্যকর করার জন্য সকাল থেকেই নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রয়েছে । তবে সরকার ঘোষিত লকডাউন কার্যক্রর করতে জনসাধারনও অনেকাংশ সাড়া দিয়েছেন । এই লকডাউন কার্যক্রর করার সময় খাদ্যের ঘাটতি হলে মানবিক ভাবে সহযোগিতা করা হবে বলেও তিনি জানিয়েছেন ।

দিনাজপুর জেলায় গত ২৪ ঘন্টায় ৩৯৫ জনের করোনা নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে তার মধ্যে নতুন করে ১৫১ করোনা শনাক্ত হয়েছে । করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অস্থায় ৪ জন মারা গেছে । জেলায় করোনা শনাক্তের হার ৩৮.২২ শতাংশ । জেলা সদরে ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে তার ৭৮ জন করোনা পজেটিভ । তাই সদরে করোনা সনাক্তের হার ৮২.৯৭ শতাংশ ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.