Ultimate magazine theme for WordPress.

গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী

অনলাইন ডেস্ক


রাজধানীর শাজাহানপুরের গুলবাগে রুবিনা ইয়াসমিন নদী (২১) নামে এক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী তার বান্ধবীকে ভিডিও কল দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। বুধবার তাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল বক্সের পুলিশ পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, রুবিনা বরগুনা বেতাগী উপজেলার রফিকুল ইসলাম বাদলের মেয়ে। তার বাবা পুলিশে কর্মরত। রুবিনা একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিভাগে পড়াশোনা করতেন। ​মারিয়াম নামে এক বান্ধবীকে নিয়ে সাবলেট থাকতেন মালিবাগের গুলবাগের একটি বাড়ির পঞ্চম তলায়। পড়াশোনার পাশাপাশি চাকরি করতেন একটি বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানে।

রুবিনার বান্ধবী মারিয়াম বলেন, রুবিনাকে বাসায় রেখে তিনি কাজে চলে যান। বিকেল ৩টার দিকে নদী তাকে ভিডিও কল দেয় এবং বাসায় আসতে বলে। কিছুক্ষণ পর ভিডিও কলে রেখেই নদী ফ্যানের সঙ্গে নিজের ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দেয়। তিনি দ্রুত বাসায় গিয়ে ভেতর থেকে দরজা লাগানো পান। ডাকাডাকি করলেও কোনো শব্দ পাননি। পরে দরজার ছিটকিনি ভেঙে সিলিং ফ্যান থেকে ঝুলন্ত রুবিনাকে নামিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান।

শাহজাহানপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল হক বলেন, প্রাথমিকভাবে ঘটনাটি আত্মহত্যা বলে মনে হচ্ছে। ময়নাতদন্তের পর লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.