Ultimate magazine theme for WordPress.

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদককে প্রকাশ্যে পিটিয়ে গুরুতর আহত

দিনাজপুর প্রতিনিধি


দিনাজপুর খানসামা উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও আঙ্গারপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ধীমান চন্দ্র দাসের ছাত্রলীগ ও মৎস্যজীবী লীগ নামধারী কয়েকজন সন্ত্রাসী প্রকাশ্যে হামলা করে গুরুতর আহত করা হয়েছে ।

ধীমান দাস গুরুতর ও রক্তাক্ত অবস্থায় খানসামা উপজেলা বাগেরহাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে ।

বুধবার সন্ধ্যায় খানসামা উপজেলার পাকেরহাটরস্থ চরণ কালী মন্দিরে পূজা উদযাপন কমিটির জরুরী লকডাউন বিষয়ে সভা চলাকালীন সময়ে সশস্ত্র সাবেক ছাত্রলীগ ও মৎস্যজীবী লীগের নামধারী , একাধিক মাদক মামলা আসামী রেজাউল করিম কালা, লিটন , সাজ্জাদ, সবুজসহ আরোও ৮/১০ জন হামলা প্রকাশ্যে হামলা করে ।

ধীমান চন্দ্র দাস হাসপাতালের বেডে বসে সাংবাদিকদের বলেন, গত ২১ জুন উপজেলার একটি মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করার সময় ছাত্রলীগ ও মৎস্যজীবী লীগ নামধারী এই সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা সেইদিন হামলার ঘটনা ঘটায় সেই হামলায় গুরুতর আহত না হলেও বিষয়টি খানসামা থানায় ৪ জনের নাম উল্লেখ করে অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ পাওয়ার পর খানসামা থানা কর্তৃপক্ষ বিষয়টি তদন্ত শুরু করায় আসামীরা ক্ষিপ্ত হয় । সেই অভিযোগে সাবেক খানসামা উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক রেজাউল করিম কালা, লিটন , সাজ্জাদ, সবুজের নাম থাকায় তারাই একত্রিত চরণ কালী মন্দিরে পূজা উদযাপন কমিটির সকল সদস্যদের উপস্থিতিতে পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও আঙ্গারপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ধীমান চন্দ্র দাসকে লাঠি দ্বারা এলোপাতাড়ি ভাবে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে । রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকলে স্থানীয়রা ধীমান চন্দ্র দাসকে রক্তমাখা অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে ।

প্রকাশ্যে নামধারী ছাত্রলীগ ও মৎস্যজীবী লীগ বাহিনীর হামলার ঘটনায় আহত ধীমান চন্দ্র দাস হওয়ার সংবাদটি উপজেলায় ছড়িয়ে পড়লে তাৎক্ষণিকভাবে পূজা উদযাপন কমিটির সকল সদস্য ও আঙ্গারপাড়া ইউনিয়ন আওয়াামী লীগের সদস্যরা একত্রিত হয়ে সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবীতে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করে ।

খানসামা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি কামাল শেখ ঘটনাস্থলে এসে হামলাকারীদের গ্রেফতার এবং বিচারের আওতায় আনা হবে এই মর্মে আশ্বস্ত করলেন অবরোধকারীরা রাস্তার অবরোধ তুলে নেয় ।

খানসামা থানা ওসি কামাল শেখ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন পুলিশ ইতিমধ্যেই হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করার জন্য অভিযান শুরু করেছে এবং এদেরকে আইনের আওতায় অবশ্যই আনতে হবে বলে দাবি করেন ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.